বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন, 2০২2
নতুন সময় ডেস্ক
Published : Monday, 16 May, 2022 at 1:31 PM, Update: 16.05.2022 1:33:04 PM
চার জনের এক সঙ্গে সঙ্গম! এক বাড়িতেই বাস দুই দম্পতির! গর্ভবতী দুই স্ত্রীই! তারপর যা হল, জানলে অবাক হবেন

চার জনের এক সঙ্গে সঙ্গম! এক বাড়িতেই বাস দুই দম্পতির! গর্ভবতী দুই স্ত্রীই! তারপর যা হল, জানলে অবাক হবেন

গোটা বিশ্বে কোথায় যে কী হয়, তা বলা মুশকিল। যেখানে এক দেশে সম্পর্কে তৃতীয় ব্যক্তির প্রবেশে খুন পর্যন্ত হয়ে যেতে হয়! সেখানেই আবার এক মহিলাকে ভালবেসে দিব্যি কাটিয়ে দেয় দুই পুরুষ। এমন নানা ঘটনা রোজ সামনে আসে। যা অবাক করে দেয়। মানুষের সম্পর্ক ভারি জটিল। মন যে কখন কী চায় কে বলতে পারে! তবে মনের গুরুত্ব সব জায়গায় সমান নয়। দেশ বিশেষে, মানুষ বিশেষে, পরিস্থিতি বিশেষে বদলে যায় অনেক কিছুই। অনেকটা লালনগীতির মতো 'পাপ পুণ্যের কথা আমি কারে বা শুধাই।এই দেশে যা পাপ গণ্য, অন্য দেশে পুণ্য তাই।"

এই গল্পও অনেকটা তেমনই! দুই মহিলার আলাপ হয় সোশ্যাল মাধ্যমে। বন্ধুত্ব গভীর হয়। একে অপরের সঙ্গে দেখা করেন। এর পর তাঁদের স্বামীদেরও আলাপ হয় একে অপরের সঙ্গে। বন্ধুত্ব এতটাই গাঢ় হয়, যে তাঁরা ঠিক করেন চারজন এক সঙ্গে থাকবেন। দুই দম্পতির একটি করে সন্তান ছিল। সকলে মিলে এক সঙ্গে এক বাড়িতে থাকতে শুরু করেন। প্রথমে সব ঠিক ঠাক ছিল। কিন্তু এর মাঝেই ঘটে গেল অঘটন।

এক সঙ্গে থাকতে গিয়ে ওই চারজন মানে দুই বধূ সঙ্গমে লিপ্ত হয়েছে একে অপরের স্বামীর সঙ্গে। এমনকি প্রথমে বিষয়টা চাপা থাকলেও। বেশি দিন তাঁরা লুকিয়ে রাখেননি। চারজনেই বিষয়টা নিয়ে আলোচনা করেছেন। এবং এক সঙ্গেই চারজন একে অপরকে ভালবাসতে শুরু করেছেন। লিপ্ত হয়েছেন শারীরিক সম্পর্কেও। আর এর পরেই ঘটল মহা বিপদ

এক সঙ্গে গর্ভবতী দুই স্ত্রী। এখন ওই দুই বধূর গর্ভের সন্তানের পিতা কে তা জানেন না চারজনের কেউ-ই! কার স্বামী কার সন্তানের পিতা তা জানা সম্ভবও নয়। তবে এতে অবশ্য আপত্তি নেই তাঁদের। জানা গিয়েছে, ওই দুই দম্পতি জানিয়েছেন, তাঁরা একটি বড় পরিবার। তাঁদের সন্তানদের দুই বাবা, দুই মা। এভাবেই গোটা জীবন বেঁধে বেঁধে থাকতে চান ভালবাসায়। এমনকি ওই দুই দম্পতির আগের দুই সন্তানও এখন গর্বের সঙ্গে বলে তাদের দুই বাবা, দুই মা। গোটা ঘটনাটি ঘটেছে আমেরিকার অরেগন প্রদেশে। মানুষ চাইলে কী না পারে! সবটাই লালন যেন কত আগে বলে গিয়েছিলেন তাঁর গানে, "তিব্বত নিয়ম অনুসারে, এক নারী বহু পতি ধরে। এই দেশে তা হলে পরে, ব্যাভিচারী দণ্ড হয়"


পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত


DMCA.com Protection Status
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, ২৫/১ পল্লবী, মিরপুর ১২, ঢাকা- ১২১৬
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: info@notunshomoy.com
Developed & Maintainance by i2soft