শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি, 2০২2
নতুন সময় ডেস্ক
Published : Friday, 14 January, 2022 at 2:03 PM
শীত ফ্যাশনের স্কার্ফ

শীত ফ্যাশনের স্কার্ফ

ঋতু বদলের সঙ্গে বদলে যায় ফ্যাশন ট্রেন্ট। তেল আর পানি যেমন একসঙ্গে মিশে না। গরমের পোশাক আর শীতের পোশাক এক হয় না। শীতের সময়ে ওয়েস্টার্ন পোশাকের আধিপত্য খানিকটা বেশি। ব্লেজার, জ্যাকেট আর কটির সঙ্গে শীতের ফ্যাশনের অন্যতম অনুষঙ্গ হতে পারে স্কার্ফ। আবার কিছু স্কার্ফ আছে যা দেশীয় পোশাকের সঙ্গেও সমান মানানসই্

কালের বিবর্তনে স্কার্ফ
শীত ফ্যাশনে স্কার্ফ অনুষঙ্গ হলেও এর প্রচলন সেই প্রাচীন রোম থেকে। কয়েক হাজার বছর আগে সেখানকার মানুষেরা গলায় এক টুকরো একরঙা কাপড় জড়িয়ে রাখতো ঘাম কিংবা ধুলাবালি থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখার জন্য। এ এক টুকরো কাপড়ের ছিল বিশেষ একটি নাম। এটিকে তখনকার রোম সভ্যতার মানুষরা সুইডারিয়াম নামে জানত। আবার অন্যদিকে চীনা সৈনিকদের গলাতেও দেখা মিলতো এ স্কার্ফের। সৈনিকদের র‌্যাঙ্কিং এবং পাশাপাশি তাদের দলগতভাবে ভিন্ন করে বুঝাতেই গলায় স্থান পেত এ স্কার্ফ। তবে সেই সময়ের ব্যবহৃত স্কার্ফ সাধারণ মানুষদের কাছে খুব একটা গ্রহণযোগ্যতা পায়নি। পরে ঊনবিংশ এবং বিংশ শতাব্দীর শেষে এসে স্কার্ফ ফ্যাশনে তার জায়গা তৈরি করে নতুন করে।

স্কার্ফের রকম সকম
এক সময় স্কার্ফ শুধু এক পাল্লা করে গলার দুই পাশে ঝুলিয়ে রাখা হতো। বর্তমানে শুধু গলার দুই পাশে নয় অনেকে স্কার্ফ পেঁচিয়ে তা মাথায় বেঁধে চুলের সঙ্গে পেঁচিয়ে কাধের একপাশ করে রাখতে বেশি স্বাছন্দ্যবোধ করে। আবার অন্যদিকে অনেকেই ত্রিকোণ আকৃতির এক টুকরো কাপড়কে গলার এক পাশে ছড়িয়ে আরেক পাশে ভাঁজ করে রাখে। কিছু কিছু স্কার্ফের ক্ষেত্রে বেনুনির আঙিকে পেঁচিয়ে তা ক্রিসক্রস করে গলায় পরা হয়। কিছু কিছু স্কার্ফের ক্ষেত্রে তা ফোল্ডিং করে গলায় ঝুলিয়ে রাখা হয়।

কোন পোশাকে কেমন স্কার্ফ
স্কার্ফ বেছে নেওয়াটা নির্ভর করে পোশাকের ওপর।পশ্চিমা আপোশাকের সঙ্গে যেসব ডিজাইনের স্কার্ফ মানানসই তা আবার সালোয়ার-কামিজ, সর্ট কামিজ কিংবা কুর্তিত সঙ্গে মানানসই না। কুর্তি কিংবা সর্ট কামিজের সঙ্গে ফোল্ড করে পরা স্কার্ফ কিংবা ত্রিকোণ আকৃতির চওড়া স্কার্ফ বেশ মানানসই। তবে শীতের সময়ে আপনি আপনার পছন্দ মতো যে কোনো ডিজাইন নিজের মাঝে ধারণ করতে পারেন। শীতের এ সময়ে জ্যাকেট, কোট, কটির কারণে যে কোনো ডিজাইন বেশ মানিয়ে যায়। তবে খেয়াল রাখুন স্কার্ফ যেন খুব বেশি চিকন কিংবা চওড়া না হয়। সেই ক্ষেত্রে স্কার্ফ নিজস্বতা হারিয়ে ফেলবে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে ছোট আকৃতির স্কার্ফ ব্যবহার করা হয়। তবে বর্তমানে বড় স্কার্ফের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। এ ছোট ধরনের স্কার্ফগুলো একাধারে যেমন স্কার্ফ হিসেবে ব্যবহার করা যায় তেমনি আবার ছোট ওড়না হিসেবেও এটি ব্যবহার করা যায়। আর এ ধরনের স্কার্ফ জিন্স, টি-শার্ট, সালোয়ার-কামিজের সঙ্গে বেশ মানানসই। স্কার্ফের এ ত্রিকোণ আকৃতি ছাড়াও চারকোণা স্কার্ফের চাহিদাও অনেক বেশি।

স্কার্ফের বাহারি ডিজাইন
স্কার্ফে কাপড় হিসেবে বেশি ব্যবহার করা হয় কটন, উলেন ও হাফ সিল্ক কাপড়ে।অবশ্য জর্জেট ও সিনথেটিক কাপড়ের কিছু স্কার্ফ পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়াও আজকাল জামদানি কাপড়ও ব্যবহৃত হচ্ছে স্কার্ফ তৈরিতে। স্কার্ফগুলোতে ভিন্নতা আনতে নানা সাইজের পাশাপাশি চুমকির কাজও রয়েছে। ফিলিস্তিনি স্কার্ফের আদলে স্ট্রাইপের মধ্যে কটন কাপড়ের ডাবল লেয়ার স্কার্ফ পাওয়া যাচ্ছে। যার দৈর্ঘ্যটা একটু বড় রাখা হয়েছে, বিভিন্ন স্টাইলে পরার সুবিধার্থে। স্কার্ফগুলোর মধ্যে উইভিং ম্যাকানিজমে এমব্রয়ডারি সিস্টেমে রয়েছে কিছু, যার উইভ চওড়া এবং চিকনও আছে, সলিড কালার ও মাল্টি কালারের মধ্যে পাওয়া যাবে এগুলো।

কোথায় পাবেন কেমন দাম স্কার্ফ পাশ্চাত্যের পোশাক হলেও আজকার বেশকিছু দেশীয় ফ্যাশন হাউস স্কার্ফ তৈরি করছে। আমাদের দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলো বাজারে যেসব স্কার্ফ এনেছে সেগুলো একটু মোটা ধরনের। দেশীয় ফ্যাশন হাউস ছাড়াও দেশের বিভিন্ন বড় বড় শপিংমল যেমন—বসুন্ধরা সিটি যমুনা ফিউচার পার্ক, নিউ মার্কেট, মাস্কট, রাজউক কমপ্লেক্স, ইস্টান প্লাজা, চাঁদনী চক, গাউছিয়া, বঙ্গবাজার, বসুন্ধরা সিটি থেকে শুরু করে আপনার আশপাশের যে কোনো শপিংমলে স্কার্ফ পাবেন।

কাপড় ও কাজের ভিন্নতার ওপর স্কার্ফের দাম নির্ভর করে । বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসে স্কার্ফগুলো পাওয়া যাবে তিনশ’ থেকে দুই হাজার টাকার মধ্যে। আর শপিংমলের স্কার্ফগুলো পাওয়া যাবে পাঁচশ’ থেকে দেড় হাজার টাকার মধ্যে। তবে নিউমার্কেট, গাউছিয়া, বঙ্গবাজারে স্কার্ফ পাবেন দেড়শ’ টাকার মধ্যেই।


পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত


DMCA.com Protection Status
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, ২৫/১ পল্লবী, মিরপুর ১২, ঢাকা- ১২১৬
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: info@notunshomoy.com
Developed & Maintainance by i2soft