রবিবার, ২৮ নভেম্বর, 2০২1
Published : Wednesday, 4 March, 2020 at 2:02 AM
দিদির সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কথা বয়ফ্রেন্ডকে বলে উঠতে পারিনি। আমি কি তবে বাইসেক্সুয়াল?

দিদির সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কথা বয়ফ্রেন্ডকে বলে উঠতে পারিনি। আমি কি তবে বাইসেক্সুয়াল?

আমি পদার্থবিদ্যা নিয়ে স্নাতকোত্তর স্তরে লেখাপড়া করছি। লেডিস হস্টেলে থেকে পড়াশোনা করতে হয়। সম্প্রতি না চাইতেও হস্টেলেরই এক দিদির সঙ্গে আমার ঘনিষ্ঠতা বেড়ে গিয়েছে। শুরুটা হয়েছিল একসঙ্গে পর্নমুভি দেখতে গিয়ে। মজার ছলে সেটা দেখতে গিয়েই ও আমাকে প্রথমবার অন্যভাবে স্পর্শ করেছিল! একদিনে যেটুকু বুঝছি, ও পুরোপুরি লেসবিয়ান। সম্ভবত সেই কারণেই আজও ওর কোনও বয়ফ্রেন্ড নেই। কিন্তু আমি দু’বছর ধরে প্রেম করছি। বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে আমি ক্লোজ় হয়েছি এবং যথেষ্ট এনজয়ও করেছি প্রতিবার। ওই দিদির সঙ্গে আমার এই ঘনিষ্ঠতার কথা আমি বয়ফ্রেন্ডকে বলে উঠতে পারিনি এখনও। আমি কি তবে বাইসেক্সুয়াল? দু’জনকেই কি ঠকাচ্ছি আমি?
নাম ও ঠিকানা প্রকাশে অনিচ্ছুক

 
মন্তব্য : সিগমুন্ড ফ্রয়েড নামে এক বিখ্যাত ডাক্তারবাবু সেই কবেই বলে গিয়েছেন, প্রত্যেক মানুষ নাকি জন্মের সময় বাইসেক্সুয়াল হয়েই জন্মায়। ফ্রয়েড এর নাম দিয়েছিলেন ইন্নেট (Innate) বাইসেক্সুয়ালিটি। পরবর্তীকালে বেড়ে ওঠার পথে বিভিন্ন ইন্টারনাল ও এক্সটারনাল ফ্যাক্টরের প্রভাবে আমরা মোনোসেক্সুয়াল হয়ে উঠি। বিশ্বখ্যাত এই নিউরোলজিস্টের এই মতামত মেনে নিয়ে বলা যায়, অল্পবিস্তর আমরা সকলেই বাইসেক্সুয়াল। সাধারণত পুরুষ বা নারী, দু’টি সত্তার যে কোনও একটি প্রকট হয়ে ওঠে আমাদের শরীরে, অন্যটি থেকে যায় সুপ্ত অবস্থায়। এ তো গেল ডাক্তারি পরিভাষায় ব্যাপারটার ব্যাখ্যা। এবার আলো ফেলা যাক উক্ত সমস্যাটিতে। এমন ঘটনা হস্টেলে থাকা ছেলেদের মধ্যেও দেখা যায় অনেকসময়ই। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই যেটা হয়, এই বয়সে শরীর নিয়ে স্বাভাবিক একটা কৌতূহল থেকে আকর্ষণ তৈরি হয় সমলিঙ্গের প্রতিও। যারা একান্তই সমকামী, তাদের কথা আলাদা। কিন্তু যারা তেমনটা নও, ইতিমধ্যেই বিপরীত লিঙ্গের একজন মানুষের সঙ্গে জড়িয়ে আছ, তারাও কেউ এমন সাময়িক সমকামী সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লে, সাফ কথা বস, বেরিয়ে এসো! এই ধরনের গোপন সম্পর্ককে দু’নৌকোয় পা দিয়ে চলা বলা যায় না ঠিকই, কিন্তু সামান্য সময়ের শারীরিক সুখের জন্য অহেতুক অনেকখানি মানসিক অশান্তি যে বহন করতে হয়, সেকথা কিন্তু অস্বীকার করার উপায় নেই। সেক্সুয়ালি ট্রান্সমিটেড অসুখ ছড়ানোর জন্যও যে এই ধরনের সম্পর্ক উত্তম অনুঘটকের কাজ করে, সেকথাও সত্যি। অহেতুক মানসিক অশান্তি এড়াতে চাইলে, ভালয়-ভালয়, এই গোপন সম্পর্ক ডালপালা ছড়িয়ে তোমার আশপাশে জাঁকিয়ে বসার আগেই বেরিয়ে এসো। উলটোদিকের মানুষটিকে বোঝাও, এতে তোমার মন সায় দিচ্ছে না। যা হয়েছে, ভুলই হয়ে গিয়েছে। কিন্তু আর নয়।


পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত


DMCA.com Protection Status
সম্পাদক ও প্রকাশক: নাজমুল হক শ্যামল
দৈনিক নতুন সময়, ২৫/১ পল্লবী, মিরপুর ১২, ঢাকা- ১২১৬
ফোন: ৫৮৩১২৮৮৮, ০১৯৯৪ ৬৬৬০৮৯, ইমেইল: info@notunshomoy.com
Developed & Maintainance by i2soft